রবীন্দ্র” বনাম ‘সোমনাথ ভদ্র’

0
Share it, if you like it

নতুন একটি হিন্দি চলচিত্রে অমিতাভ বচ্চনের রবীন্দ্রনাথ রুপি একটি চিত্র সোশ্যাল মিডিয়াতে হামেশাই দেখা যাচ্ছে। কিন্তু আজ গল্প বলছি এক অন্য রবির। নামের মধ্যে মিল শুধু মাত্র “দ্র” এর, কিন্তু চেহারায় উনি ৯০% রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। ঝাঁকড়া চুল ও দাঁড়ির সাথে লম্বা বেক্তি দেখলেই বাঙালি অবশ্য রবি ঠাকুরের সাথে মিল পায়, কিন্তু এক্ষেত্রে মিল যেন একটু বেশিই। নাম সোমনাথ ভদ্র, ধাম হেদুয়া।

প্রথম দর্শনেই যাকে দেখে আপনি হতভম্ব হয়ে যাবেন। তবে একটু কাছ থেকে এবং খুব ভালো করে খেয়াল করলে তবেই আপনি তা বুঝতে পারেবেন। কিন্তু ছবিতে দেখে আন্দাজ করা বেশ শক্ত। কবি গুরু জড়িয়ে আছেন ওনার জীবনে। ৫৬-৫৭ বয়স্ক এই ভদ্রলোক ছোটবেলা থেকেই মনেপ্রানে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কে নিজের হৃদয় আসনে বসিয়েছেন। খুব অল্প বয়স থেকেই রবীন্দ্রসঙ্গীতের প্রতি উনি আলাদা এক টান অনুভব করতেন, সাথে রবি ঠাকুরের জীবনের প্রতিও। শোনা যায় একই রকম দেখতে মানুষ পৃথিবীতে বহু উদাহরণ রয়েছে, আজ পাওয়া গেলো তারই একটিকে।

আপনি ওনার দর্শন পেতে পারেন ওনার হেদুয়ার বাড়ি, আপিস আর জোড়াসাঁকো এই তিন জায়গায়। ছোটবেলা থেকেই সোমনাথ ভদ্রের আসা যাওয়া জোড়াসাঁকোতে। ২৫ শে বৈশাখ, ২২ শে শ্রাবণ বা বসন্ত উৎসব, আপনি সোমনাথ ভদ্রের দর্শন পেতে পারেন জোড়াসাঁকোতে।

সুপর্ণা ঘোষ

নিজের কথা লিখতে গেলে গুলিয়ে যায়, বলতে জিভ জড়িয়ে যায়। তবুও নিজের কথা বলতে কার না ভালোলাগে! Visit করুন আমার ব্লগ www.meghbristi.com/about. “মেঘ বৃষ্টি” আসলে আমার ডাইরির পাতা। কিছুটা কল্পনা, কিছুটা ছেলেমানুষি, কিছুটা অভিমান আর অনেকটাই স্মৃতি। ছোটবেলা থেকেই লিখতে ভালো লাগতো, ভাবতে ভালো লাগতো। ডাইরির পাতায় কত আঁকিবুঁকি, কত কাটাকুটি, কত দুষ্টুমি আছে। যতটা সম্ভব “মেঘ বৃষ্টি” তে তুলে ধরলাম।

অন্যান্য লেখা

Leave A Reply