প্রিয় অপ্রিয় – নাজমুল হক

1

আমি খুব জানতাম
কোন রঙটা আমার প্রিয়
কোন সুগন্ধি টা নস্টালজিক করে
কোন কালারের পাঞ্জাবী
কোন শার্টে কোন প্যান্টে দারুণ লাগে
দুপুরের মেনুতে বা সন্ধ্যায়
কোনটা খেতে কতটা মন চাইত আমার
কোন পাহাড়
কোন নদী
কোন পার্ক
কোন খোপা
কোন সিগারেট
ছবি আকতে না কবিতা লিখতে
আবৃত্তি? না গান
নাকি থিয়েটার
রাজনীতি না ক্রিকেট
শিক্ষক?সাংবাদিক?
না প্রাইভেট অফিসের বস
নাকি দোকানদারি
না ব্যস্ত ব্যবসায়ী
উত্তম না শাহরুখ
ছেলে হলে
না মেয়ে হলে
পারফেক্ট কোনটা আমার প্রিয়
সে প্যাশন সবার মত
আমারও ছিল……

এসব নাকি ছিনিয়ে নিতে হয়
প্রিয় কে পেতে হলে সাধনা করতে হয়

কঠোর অধ্যাবসয়ের পরও আমার
চারপাশে কিছু চেনা মানুষের
অপ্রিয় সত্যকে সঙ্গে নিয়ে চলতে
দেখে আমার ভীষণ ভালো লাগে
আমি অনুপ্রেরণা পাই–
লাস্ট বেঞ্চে বসা সুবল যখন
সাদা ধবধবে মখমল কাপড়ের
পাঞ্জাবিতে স্টেজ কাপায়
তখন তাকে দেখে আর রাগ হয়নাআমার,হিংসেও নেই এতটুকু
যে ছেলেটাকে ক্লাসে স্যারেরা
ডাল-পাঠা বলত রাগ হয়না তাকে দেখে
সে যখন সরকারী আধিকারিক হয়ে
সকাল দশটায় প্রতিদিন আমার সামনে
দিয়ে হুস করে বুলেট ছুটিয়ে যায়
একটুও রাগ হয়না টুকতে গিয়ে ধরাপড়া ছেলেটা উচ্চ মাধ্যমিকে ফেল করেও শিক্ষা দফতরে চাকরী করছে দেখে
খারাপ লাগেনা সরকারী পাঠাগারে চোস্তা জিনসে উনিশ বছরের শাহনওয়াজকে সেক্রেটারী হিসাবে ফেসবুকে লাইভ দেখে
একটুও রাগ হয়না জেলা পরিষদে বিজয়ী ফোর পাশ পাঁচুদাকে দেখে

বাগ্মী ইমতিয়াজ যখন রাস্তায় দাড়িয়ে
ওষুধ বিক্রী করে
ফিলোজফির ফাস্ট ক্লাস তন্ময় যখন
পুরানো বাইক কেনা বেঁচা করে
বাংলায় এমএ বি এড মইদুল
যখন পি এন্ড জির সেলসে কাজ করে
বোটানি অনার্স প্রকাশ যখন
লটারীর টিকিট বেঁচে
রোজের আনা ভালো ভেবে
যখন ইতিহাসের দিকপাল রঞ্জন টোটো
চালায়
তখন থেকে আমি সব ভুলে যাই
যা কিছু ছিল আমার একান্ত প্রিয়…
ঝরনার জলে মিশে যায় নদী
নদী মিশে যায় লালে আর লাল মিশে যায় হলুদে
আমি ভুলে যাই
সকালে যেটা ছিল অপ্রিয়
রাতে সেটা খাস ভেবে ঘুমোতে যাই
সবটাই দেখি নাটক
আর সবটাই দেখি নাটুকে প্রিয় !

⏺ প্রিয়-অপ্রিয় ⏺
নাজমুল হক/01-09-2018

Share.

About Author

Author's facebook profile link: নাজমুল

1 Comment

Leave A Reply