চড়ুইগাছি – গাইঘাটা

চড়ুইগাছি – গাইঘাটা

এই সেই বিখ্যাত গ্রাম, যেখানে ১৯৮৩ সালের ১২ এপ্রিল মঙ্গলবার (২৮শে চৈত্র ১৩৮৯) ঘূর্ণিঝড় হয়েছিল। দিনটি ছিল ১৯৮৩ সালের ১২ এপ্রিল মঙ্গলবার (২৮শে চৈত্র ১৩৮৯), এক ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় তাণ্ডব করেছিল উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা থানার অন্তরগত চড়ুইগাছি নামক এক গ্রামে। যদিও খাবরের শিরোনামে এসেছিল গাইঘাটার নাম। ঘটনাটি ঘটেছিলো আমার জন্মের আগে, যা কিছু আমি জানি সবই আমার ঠাকুমা, বাবা, মা ও কাকার কাছে গল্প শোনা। ইন্টারনেট তন্নতন্ন করে খুজে আমি বিশেষ কিছু পাইনি। কেবল পাত্র কয়েকটি সরকারি নথিপত্রে উল্লেখ আছে যা, কিন্তু বাস্তবটা ছিল আরও কঠিন।

সন্ধ্যার সময় ১৯৮৩ সালের ১২ এপ্রিল মঙ্গলবার (২৮শে চৈত্র ১৩৮৯) হঠাৎ শোনা যায় শোশো শব্দ এবং মুহূর্তে মধ্যে গ্রামের অর্ধেক অংশ তছনছ হয়ে গেলো। প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি ও মৃত্যুর কালো ছায়া ঢেকে দেয় চড়ুইগাছি গ্রাম কে। সরকারি সুত্রে ২৮/৩০ জন মানুষ নিহত এবং ৫০০+ আহত।
কিছু শোনা ঘটনা – ঠাকুমা আর মা মুখে শোনা, ঝরের শেষে দেখা গিয়েছে যে

নারকোল গাছে তীরের মত বেঁধে আছে ধান ঝাড়া কুলো,
পুকুরের সব জল মাছ শুদ্ধ ঝড়ে উড়িয়ে নিয়ে অন্য যায়গায় ফেলা,
ধানের গোলা উড়িয়ে নিয়ে গিয়ে অন্য জায়গায় বসানো,
ঘরের মাটির দেয়াল চাপা পড়ে থাকা মৃত দেহ,
উপড়ে যাওয়া বড় বড় গাছ ইত্যাদি।

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেন

পাগলের প্রলাপ

আমার নিঃশব্দ কল্পনায় দৃশ্যমান প্রতিচ্ছবি, আমার জীবনের ঘটনা, আমার চারপাশের ঘটনার কেন্দ্রবিন্দু থেকে লেখার চেষ্টা করি। প্রতিটি মানুষেরই ঘন কালো মেঘে ডাকা কিছু মুহূর্ত থাকে, থাকে অনেক প্রিয় মুহূর্ত এবং একান্তই নিজস্ব কিছু ভাবনা, স্বপ্ন। প্রিয় মুহূর্ত গুলো ফিরে ফিরে আসুক, মেঘে ডাকা মুহূর্ত গুলো বৃষ্টির সাথে ঝরে পড়ুক। একান্ত নিজস্ব ভাবনা গুলো একদিন জীবন্ত হয়ে উঠবে সেই প্রতীক্ষাই থাকি।

Create Account



Log In Your Account