বাচ্চাদের কার্টুনের প্রতি অতিরিক্ত আসক্ততা

0

অতিরিক্ত কার্টুন দেখার অপকারিতা
১. বাচ্চারা কার্টুনের প্রতি অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে পড়ে।
২. কার্টুন দেখতে দেখতে তারা এই ভার্চুয়াল জগৎকেই আসল বলে মনে করে এবং বাস্তবের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলে।
৩. আসল জীবনে সম্পর্কের জায়গাগুলো খুব গোলমেলে হয়ে পড়ে।
৪. তারা খুব মারমুখী হয়ে পড়ে।
৫. অতিরিক্ত কার্টুন দেখার ফলে শরীরের উপর তার প্রভাব পরে। কারণ অনেক সময় বাচ্চারা দীর্ঘক্ষণ টিভি দেখতে দেখতে সারাক্ষণ কিছু না কিছু খেতে থাকে। তাই স্বাভাবিক ভাবেই তাদের শরীর খারাপ হয়।
৬. দীর্ঘক্ষণ টিভি বা মোবাইলের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকলে চোখের উপরে চাপ পরে ও চোখ খারাপ হয়ে যেতে পারে।

কী ভাবে শিশুকে কার্টুনের আসক্তি থেকে দূরে রাখবেন
১. এখন এমন অনেক চ্যানেল হয়েছে যেখানে সারাদিনই প্রায় কার্টুন দেখানো হয়। তাই কার্টুন দেখার একটা নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দিতে হবে। ধরুন সারাদিনে পড়াশোনা শেষ হলে ৩০ মিনিট কার্টুন দেখার জন্য বরাদ্দ থাকবে তাদের। এভাবে সে সারাদিনের দৌড়াদৌড়ির পর কিছুটা সময় নিজের জন্য নিজের মতো করে কাটাতে পারে।
২. অভিভাবকদের উদ্দেশে বলব, সন্তানের সঙ্গে সময় কাটান। সন্তানকে খেলার মাঠে নিয়ে যান কিংবা তার সঙ্গে বসে ভালো ভালো বই পড়ুন এর ফলে তার মন শুধুমাত্র কার্টুনের দিকেই পড়ে থাকবে না।
৩.পরিবারের সকলের সঙ্গে বাচ্চাদের সম্পর্কের সমীকরণটা তাদের বোঝাতে হবে। পাশাপাশি তাদের কোনটা ভুল বা কোনটা ঠিক সেটাও বোঝাতে হবে।
৪. শিশু কোনও ভালো কিছু করলে বা একদিন কম কার্টুন দেখলে ওকে প্রশংসা করুন। আপনার প্রশংসা ওকে উৎসাহিত করবে।
৫. ও যে কাজটা করতে ভালোবাসে যেমন কেউ আঁকতে ভালোবাসে আবার কেউ হাতের কাজ করতে ভালোবাসে, তাদের সেই কাজগুলো করতে আরও উৎসাহিত করুন।

কার্টুন জগৎ থেকে তাদের বিচ্ছিন্ন করার কথা বলছি না, তবে তারা যাতে সৃজনশীল কিছু করে সে দিকেও নজর দেওয়া উচিৎ মা-বাবার।
AUTHOR: DR. GAUTAM SAHA

Share.

About Author

আমার নিঃশব্দ কল্পনায় দৃশ্যমান প্রতিচ্ছবি, আমার জীবনের স্মৃতি, ঘটনা, আমার চারপাশের ঘটনার কেন্দ্রবিন্দু থেকে লেখার চেষ্টা করি। প্রতিটি মানুষেরই ঘন কালো মেঘে ডাকা কিছু মুহূর্ত থাকে, থাকে অনেক প্রিয় মুহূর্ত এবং একান্তই নিজস্ব কিছু ভাবনা, স্বপ্ন। প্রিয় মুহূর্ত গুলো ফিরে ফিরে আসুক, মেঘে ডাকা মুহূর্ত গুলো বৃষ্টির সাথে ঝরে পড়ুক। একান্ত নিজস্ব ভাবনা গুলো একদিন জীবন্ত হয়ে উঠবে সেই প্রতীক্ষাই থাকি।

Leave A Reply