ক্যামেরা বেসিক্স – কম্পোজিশন – ৪র্থ পর্ব

0
Share it, if you like it

Good photos are like good jokes. If you have to explain it, it just isn’t that good – Anonymous

ক্যামেরার প্রকারভেদ আর Aperture (Depth of Field), Shutter Speed, ISO আর Exposure নিয়ে বিগত ৩টে এপিসোডে এ আলোচনার পর এই সপ্তাহে আমরা বেসিক কম্পোজিশন নিয়ে একটু আলোচনা করব। যেকোনো আর্ট ফর্ম এ এই কম্পোজিশন এর গুরুত্ব অসীম। কম্পোজিশন আর ভাষার প্রয়োগে একটা সাধারণ কবিতা দুর্দান্ত কবিতায় পরিনত হয়। ফোটোগ্রাফির ক্ষেত্রে ঠিক সেইভাবেই একটা সাধারন ছবিও ভাল কম্পোজিশন এ ভর দিয়ে দারুন হয়ে ওঠে। বলতে পারেন Aperture, Shutter Speed আর Exposure, কবিতার ভাষার মতো। সবার জানা তবে ঠিকঠাক প্রয়োগ টা প্র্যাকটিস এর মাধ্যমে অায়ত্তে আনতে হবে। আর কম্পোজিশন হল গিয়ে কবিতার বিভিন্ন সাবজেক্ট এর মতো। মোক্ষম জায়গায় সাবজেক্ট কে প্লেস করতে হবে। তা না হলে, ছবিটা দেখার সময় Viewer কে Engage করা যাবেনা। আর Viewer কে যদি Engage ই না করতে পারলাম তবে ছবিটা তো মাঠে মারা গেল।

ফোটোগ্রাফি তে কম্পোজিশন এর কিছু নিয়ম বা Rules হয়। তার মধ্যে একেবারে বেসিক ২টি নিয়ম নিয়ে আজকের আলোচনা। বলা বাহুল্য এই নিয়ম গুলি জানা, ভাল ছবি তোলার জন্যে অত্যন্ত জরুরী। তবে ঠিক কখন এই নিয়ম গুলি ভাঙ্গব সেটা বোঝার জন্যেও নিয়ম গুলো জানা জরুরী। কারন নিয়ম ভেঙ্গেও Viewer কে Engage করতে পারলেই, আপনার দারুন ছবিটি অসাধারন হয়ে উঠবে।

১. Rule of Thirds

ফোটোগ্রাফির সবচেয়ে বেসিক নিয়ম এই Rule of Thirds. সোজা বাংলায় এই নিয়ম টা বলছে প্রধান সাবজেক্ট কে (ফ্রেম এর সেই অংশ যেখানে Viewer এর চোখ কে আমি টানতে চাইছি) ছবি বা ফ্রেম এর একেবারে মাঝামাঝি প্লেস না করতে। সাধারন বিচারবুদ্ধিতে আমাদের মনে হবে যে Viewer এর চোখ ফ্রেম এর মাঝেই সবচেয়ে দ্রুত যাবে। কিন্তু না – Viewer এর চোখ ফ্রেম এর মাঝে Naturally যায় না। তাহলে প্রধান সাবজেক্ট এর অবস্থান ফ্রেম এর কোথায় হবে?
Rule of Thirds বলছে গোটা ফ্রেমটিকে মনে-মনে ২টো লম্বালম্বি আর ২টো অাড়াআড়ি লাইন এর মাধ্যমে ৯টা সমান মাপের ছোট ফ্রেম এ ভেঙ্গে ফেলুন। এইবার Best Impact এর জন্যে নিজের সাবজেক্ট কে প্লেস করুন এই লম্বা আর আড়াআড়ি লাইনগুলোর দ্বারা তৈরী হওয়া ৪টে Crossing Point এর কোনো একটায়। সাধারণত ল্যান্ডস্কেপ (ধরুন সমুদ্র বা পাহাড়ের) ছবি তোলার সময় Horizon বা দিগন্ত কে আমরা ফ্রেম এর মাঝে রেখে ফেলি। এরকম করলে মনে হয় যে ছবিটা ২ ভাগে ভাঙ্গা হয়েছে যা চোখকে ন্যাচরল ফিলিং দেবেনা। তার চেয়ে যদি দেখেন আকাশে মেঘের খেলা ( Engaging Background) তাহলে দিগন্ত কে আপনার মনে তৈরী করা ২টো অাড়াআড়ি লাইন এর নিচের লাইনটিতে রাখুন আর যদি দেখেন বিচ ধরে প্রেমিক যুগল হেঁটে চলেছেন হাতে হাত রেখে (Story in the Foreground) তবে দিগন্ত কে প্লেস করুন ওপরের আড়াঅাড়ি লাইনটিতে। বলা বাহুল্য যেদিকে যুগল হেঁটে চলেছেন, সেইদিকে যেন জায়গা ছাড়া হয়। ধরুন ওনারা হাঁটছেন বাঁ দিক থেকে ডান দিকে, তাহলে আপনি যদি তাঁদের অবস্থান লম্বালম্বি ২টো লাইনের মধ্যে ডানদিকের লাইনে করেন তাহলে সমস্যা, যদি না বাঁ দিকে কোনো আরও বেশী ইন্টারেস্টিং কিছু থাকে।
যদিও আমি ল্যান্ডস্কেপ এর বর্ননা দিয়ে এই নিয়ম টা বলার চেষ্টা করেছি, বলে রাখা ভাল যে এই নিয়ম সব রকমের ছবির জন্যেই সমান ভাবে প্রযোজ্য। আর শুধু ছবি না, পেন্টিং, ডিজাইনিং, ইত্যাদি বিভিন্ন আর্টের জন্যেও উপযোগী ।

২. Leading Lines

কম্পোজিশন এর অন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ টেকনিক হলো গিয়ে এই Leading Lines । সোজা বাংলায় ফ্রেম এর মধ্যে থাকা বিভিন্ন Element কে ফোটোগ্রাফার হিসেবে অামায় লাইন হিসেবে ব্যাবহার করতে হবে আর চেষ্টা করতে হবে যে Viewer এর চোখ যেন সেই লাইন ধরে এগিয়ে যাবে আর খুঁজে পাবে লাইন এর শেষে অবস্থিত প্রধান সাবজেক্ট টি কে। লাইন গুলি চোখ কে লিড (রাস্তা দেখাবে) করবে – অতয়েব Leading Lines.
আপাত ভাবে একটু কঠিন মনে হলেও, চারিদিকে চোখ বোলালেই বুঝতে পারবেন, আমরা আসলে এরকম লাইন দিয়ে ঘেরা। হাতের সবচেয়ে কাছের আর উপযোগী এক্সামপেল – রাস্তা। কারন এমনিতেই রাস্তা আমাদের কোথাও নিয়ে চলেছে। আপনি একটা সাধারন গাড়ির ছবি তুলতে পারেন আর রাস্তার শেষে Rule of Third মেনে গাড়ির ছবি তুলতে পারেন। তফাৎ টা ততক্ষনাত পেয়ে যাবেন।
ফোটোগ্রাফার হিসেবে আমাদের কাজ আমরা যা কিছু চোখে দেখছি, তার মধ্যে সবচেয়ে Interesting আর Impactful বস্তু (Main subject) নিজের ছবিতে তুলে ধরা। তাই প্রথমে আমাদের সেই Subject টা খুঁজতে হবে। তারপরের কাজ হলো সেই Subject এ পৌঁছানোর জন্যে কিছু Leading Lines খোঁজা। এই লাইন গুলো Viewer কে একটা Visual Journey’র মাধ্যমে Main Subject এর কাছে পৌঁছে দেবে । At the point where the drama is. আর শুধু Visual journey নয়। Leading Lines এর ঠিকঠাক ব্যাবহারে আপনার ছবিতে Depth আর Perspective আসবে যা ছবিকে আলাদা মাত্রা প্রদান করবে আর করে তুলবে সেরা ছবি। তাই শাটার টেপার আগে ধ্যান দিয়ে দেখুন আর খুঁজে নিন রাস্তা, ব্রিজ, দেওয়াল, নদী, গাছের সারি, ইত্যাদি যা আপনি ছবিতে লাইন হিসেবে ব্যাবহার করতে পারবেন আর Viewer এর চোখকে সেই লাইন ধরে এগিয়ে নিয়ে চলুন গন্তব্যে – যেখানে আপনার দেখা ড্রামাটি রয়েছে – যা আপনি চাইছেন গোটা দুনিয়া দেখুক।

কয়েকটা নেট থেকে নেওয়া আর কটা নিজের তোলা ছবির মাধ্যমে আজকের আলোচনার বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

PS: লেখার শুরুতে দেওয়া কোট টি কার লেখা জানালে উপকৃত বোধ করব। ধন্যবাদ ।

★★ Please make a comment using Facebook profile ★★

Shubham Palit

Author’s Facebook Profile Link:
Shubham Palit

অন্যান্য লেখা

Leave A Reply