মডার্ন আর্ট

0

আমি অনেক দেখেছি, হয়তো আপনারাও দেখেছেন। কিছু মানুষ আমাদের আশেপাশে দেখতে পাবেন, যারা কলা ও সংস্কৃতি জগতের মানুষ, কলা ও সংস্কৃতি নিয়ে বেঁচে থাকেন। তাদের চিন্তা ভাবনা শুধুমাত্র কলা ও সংস্কৃতি নিয়েই। ঠিক এদেরই পাশে আর একদল মানুষ থাকনে, ঠিক যেমন বড় একটি গাছের উপরে কিছু লতা গাছ থাকে। ঠিক স্বর্ণলতার মত, স্বর্নলতা একটি পরজীবী উদ্ভিদ। কোন পাতা নেই, লতাই এর দেহ কান্ড মূল সব। লতা হতেই বংশ বিস্তার করে। সোনালী রং এর চিকন লতার মত বলে এইরূপ নামকরণ। অনেক ক্ষেত্রি আশ্রয় দাতা গাছের মৃত্যু ঘটিয়ে থাকে।

এই সব মানুষগুলির  কিন্তু নিজের কোন পরিচয় নেই, তবে ওনারা ওই আসল শিল্পী মানুষকেই আশ্রয় করে নিজের পরিচয় দিয়ে থাকেন। এই সব মানুষগুলি চামচা স্বভাবের হন, প্রশংসা পেতে ভালবাসেন, প্রকিত কলা ও শিল্প জগতের মহাপণ্ডিত হিসবে নিজেকে বার বার তুলে ধরে সকলের সম্মুখে। একটু সহজ করে একটা গল্প বলি –

কোন এক ছবির প্রদর্শনীতে, একটা বিখ্যাত শিল্পীর ছবি ঘিরে অনেক বুদ্ধিজীবী মানুষ ছবির সুখ্যাতি আর প্রসংশা করছে। কত তুলনা, কত বিশ্লেষণ, কত বড় বড় উদাহরণ দিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করছেন। অনেকখন এমন চলার পর, হঠাৎ সেই মহান শিল্পীর আবির্ভাব, প্রথমে তিনি গদগদ হয়ে সেদিকে এলেন, হাসি মুখে। সবার সাথে হাসি মুখ বিনিময় পর্ব শেষ।

তারপর, হঠাৎ মুখের হাঁসি উবে গেলো, হন্ত দন্ত হয় ছবির সামনে লাফিয়ে এসে বললেন –

“একি!! একি!!, আমার ছবি উল্টো করে টাঙ্গানো কেন?”

Share.

About Author

আমার নিঃশব্দ কল্পনায় দৃশ্যমান প্রতিচ্ছবি, আমার জীবনের স্মৃতি, ঘটনা, আমার চারপাশের ঘটনার কেন্দ্রবিন্দু থেকে লেখার চেষ্টা করি। প্রতিটি মানুষেরই ঘন কালো মেঘে ডাকা কিছু মুহূর্ত থাকে, থাকে অনেক প্রিয় মুহূর্ত এবং একান্তই নিজস্ব কিছু ভাবনা, স্বপ্ন। প্রিয় মুহূর্ত গুলো ফিরে ফিরে আসুক, মেঘে ডাকা মুহূর্ত গুলো বৃষ্টির সাথে ঝরে পড়ুক। একান্ত নিজস্ব ভাবনা গুলো একদিন জীবন্ত হয়ে উঠবে সেই প্রতীক্ষাই থাকি।

Leave A Reply