জয়পুরহাট সদর – জয়পুরহাট

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

জয়পুরহাট সদর – জয়পুরহাট – বাংলাদেশ

লেখা ও ছবি: Khalid Mahmud

জয়পুরহাট সরকারি মহিলা কলেজ

আমাদের প্ল্যানটা ছিলো এমন, যেহেতু উত্তরবঙ্গের প্রায় সবগুলো জেলাতেই যাবো কিছু না কিছু দেখতে, সেহেতু জয়পুরহাটটাকেও লিষ্টে রাখা যায় – কারন এই জেলাটা অন্যান্য জেলার মাঝে পড়ে, আর এক রাত এখানে কাটালে পরবর্তীতে অন্তত বলা যাবে যে – হ্যাঁ, আমরা জয়পুরহাটও গিয়েছিলুম – সেটা যতটুকু সময়ের জন্যেই হোক না কেন! 😉 কিন্তু জেলাটাকে ঘিরে আমাদের প্ল্যান এইটুকু হলেও পরবর্তীতে Shahana আন্টির কারনে সেটা অনেক অনেক ইনজয়েবল এবং পারফেক্ট একটা ভ্রমণ হয়েছিলো – বলা যায়! 😊😊
.
‘নর্থবেঙ্গল ট্যুর’-এ জয়পুরহাটই একমাত্র জেলা, যেখানে কোনো প্রাচীণ স্থাপত্য বা কোনো বড় নির্দশন দেখতে পারি নি বা দেখি নি… আসলে এই জেলাতে দু’একটা বড় ফ্যাক্টরি ট্যাক্টরি ছাড়া তেমন কিছু নেইও! তাহলে কি আর করা…
.
কিন্তু না, তাই বলে যে একদমই কিচ্ছু দেখি নি – তা নয়। প্রথমবার জয়পুরহাট গিয়ে অনেক অনেক মজার স্মৃতি নিয়ে ফিরে এসেছি… তারমধ্যে অন্যতম হলো শাহানা আন্টির মাধ্যমে অভি ভাইয়াদের সাথে পরিচয়। দেন অভি ভাইয়াদের বাসায় রাতযাপন… মজার ব্যাপার খুব ভোরেই বগুড়া রওনা দিবো জানার পর অভি ভাইয়ার বাবা, মানে আঙ্কেল অবাক হয়ে বললেন, “কি বলো! জয়পুরহাট এসেছো, অথচ কিছু না দেখেই চলে যাবা? এটা হয়!”
.
সাথে সাথে সেই ভীষণ শীতের রাতেই সারা শরীর মোটা মোটা কাপড়ে প্যাঁচায়ে বাইরে বের হয়ে গেলুম আমি আর ইরফান অভি ভাইয়ার সাথে! বাইকে করে রাত বারোটা পর্যন্ত পুরো জয়পুরহাট শহরের এ মাথা থেকে ও মাথা অব্দি সব ঘুরে দেখা আর অভি ভাইয়ার মুখে জয়পুরের বিভিন্ন ভূতুড়ে গল্প শোনা… অভি ভাইয়ার ভাষায়, দেশটাকে যদি পৃথিবী ধরি তবে জয়পুরহাট হচ্ছে ভ্যাটিকান সিটি! 😍 ছোট অথচ এত গুছানো শহর, ভাবা যায় না! , শীতে ফ্রিজ ওভার হয়ে যাচ্ছিলুম বাইকের পিছনে বসে 🐧🐧অল্প সময়ের জন্যে হলেই জয়পুরহাট সদরের প্রায় সব দেখতে পেরে তখন তো আমরা মহাখুশি!! আর এরকম মজার রাত পুরো ট্যুরে সত্যি বলতে এই একটাই ছিলো!

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেন
0%
0%
Awesome
Share.

About Author

বলার কিছু নাই ... প্রোফাইলে যেমন দেখতেছেন, তেমনই আমি!! https://www.facebook.com/profile.php?id=100005604526551

Leave A Reply