অন্যরকম ভোট

0
লেখাটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন
  • 9
    Shares

বড়জোড়া ব্লক অফিস। জীবনে হল গিয়ে চার নম্বর ভোটের ডিউটি। তবে এবারটা একটু বাঁচোয়া। রিজার্ভড ক্যাটেগরি কিনা! তা, পুড়ন্ত গরমে ঘেমেনেয়ে আপিসে যতরাজ্যের সইসাবুদ সেরে যখন ফাঁকা বারান্দায় এলুম, দেখি থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে এক্কেরে এয়ার-কন্ডিশনড রুমে! মিনিটখানেক বসেই চলে গেলুম গঙ্গোত্রী হিমবাহে। ভাত, ডাল, পটলের তরকারি, চাটনি আর গরম ওমলেট খেয়ে গড়িয়েও নিলুম একটু।
ঘুম ভাঙল যখন দেখি বিকেলবেলা! রাজার মতো উঠে দেখি বিডিও এসেছেন! শুধু তাই নয়, নিজে যেচে জিজ্ঞেস করছেন,” চা খাবেন আপনারা? আচ্ছা, চায়ের সাথে সিঙাড়া হলে ভাল হয়??” আমি তো তাজ্জব! এ সিনিমা হচ্ছে নাকি!! তা, দু-পিস গরম সিঙাড়া আর চা সহযোগে সাঁটিয়ে নিলুম পেটভর্তি জলখাবারটা।বাথরুমে গিয়ে দেখি একটা কলে একটু কম জল পড়চে। প্লাম্বার এসে সেরে গেল ১০ মিনিটেই! সেরে দিল আলাদিনের মতো।

খোশমেজাজে এবার ঘুত্তে বেরুলুম। টেঁরি বাগিয়ে এসব বাড়িয়ে চাড়িয়ে বল্লুম হবু গিন্নিকে। মোড়ের মাথায় গিয়ে উদরস্থ করলাম একের পর এক ঝালমুড়ি, চা, ফুচকা, আইস্ক্রিম! এক রাউন্ড খোলা মাঠে পাক খেয়ে আবার গেলুম ঝালমুড়ির কাছে। আচারের তেল মেখে মুড়ি চিবুতে চিবুতে সুখ দুখের গপ্প কল্লুম খানিক। ভদ্রলোক দু পিস এক্সট্রা নারকোলও দিয়ে দিলেন খাতির করে। মুড়ি চিবিয়ে ফিরছি যখন, দেখি, পাশে একটা কাটলেটের ঠ্যালা। রোস্টেড মাংসের প্রাণকাড়া গন্ধ পেয়ে মনটা খাই খাই করল বটে, কিন্তু তারপরেই লক্ষ্য করলুম রাস্তাঘাটে কুকুর বিশেষ নাই। সুতরাং বেজায় রাগ করে একখানা পুষ্ট এগরোলই সাঁটলাম!ভোট করচি না পিকনিক? এই কথাখান ভাঁজতে ভাঁজতে যেই না পা ফেলেছি আপিসে, শুনলুম, রাতে কষ্ট করে আর বাইরে খেতে হবে না, আপিসই রান্নার ব্যবস্থা করেচে। ৯.৩০ নাগাদ গরম গরম ডিনার দেওয়া হবে আমাদের মুখের কাচে!!

গরম মাংস আর দুপিস ফুলকো রুটি খেয়ে আয়েশ করে ভাবছি এখন, এমন ভোট কেন রোজ আসে না, কালীদা!!

সূত্র : বন্ধু তন্ময়

লিখে পাঠাতে চান নিজের অভিজ্ঞতা বা লেখা ? পাঠান এই ইমেল-ঠিকানায়: i@pagolerprolap.in অথবা নিচে কমেন্ট করুন !

আপনার মতামত

About Author

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে এই লেখাটি নেওয়া হয়েছে। এই প্রবন্ধ বা পোষ্ট লেখকের পরিচয় যতটুকু পেয়েছি, লেখার নীচে দেওয়া হয়েছে। যদি কেউ এই লেখাটির লেখকের সন্ধান বিস্তারিত জেনে থাকেন, দয়া করে অবশ্যই জানাবেন। আমাদের email করুন এই ঠিকানায়, i@pagolerprolap.in অথবা লেখার নীচে কমেন্টে করুন। -- সঞ্জয় হুমানিয়া

Leave A Reply